প্রচণ্ড মাথা বাথ্যায় কী করনীয়? দয়া করে জানাবেন। What to do with severe headaches?










আন্তর্জালে শুধু সেই সমস্ত সমস্যার সমাধান করা যায়, যেগুলোর রোগ নির্ণয়ের মধ্যে কোনো সংশয় থাকে না। দুঃখের বিষয় এই যে ‘মাথা ব্যথা’টা তো কোনও রোগ নয়, এটা একটা উপসর্গ মাত্র, এবং কারণ গুলো নেহাত তুচ্ছ থেকে শুরু করে অতি গুরুতর অবধি যা ইচ্ছা হতে পারে। আমি ব্যথার ওষুধ বললে আপনি সেটা খেয়ে কিছুক্ষণের জন্য হয়তো মাথা ব্যথা নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন, কিন্তু মূল কারণের যথাযথ চিকিৎসা না হলে আপনার মাথা ব্যথা নির্মূল হবে না, আর মূল কারণটা কী, সেটা এত কম তথ্যের উপর ভিত্তি করে কিছু বলা যায় না। মাথা ব্যথার অনেক কারণ থাকতে পারে। একেই রোগীকে দেখিনি, তার উপর শুধু প্রচণ্ড মাথা ব্যথা শুনে তো আর চিকিৎসা করা যায় না।






you are watching: প্রচণ্ড মাথা বাথ্যায় কী করনীয় ?

see more : Watch the Viper agent cosplay in the game Valorant

যাই হোক, আপনার কর্তব্য হচ্ছে আপনার নিকটবর্তী কোনো বিশিষ্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া। আমি মাথা ব্যথার কিছু সাধারণ কারণ, সেই সবের উপসর্গ ও করণীয় সম্পর্কে লিখে দিচ্ছি, সেইগুলো দেখে নিতে পারেন, কিন্তু এটা কখনই চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়, এগুলো আপনার জ্ঞাতার্থে কেবল।

    Stress : মানসিক চাপ বা শারীরিক শ্রম থেকে ক্লান্তি ও তার দরুণ মাথা ব্যথা হওয়া খুবই সাধারণ ব্যাপার। এর থেকে চিত্রে বর্ণিত tension type headache বা cluster type headache দুটোই হতে পারে। বিশেষ করে যাঁরা ক্রমাগত খুব কম বা খুব বেশি সময় ঘুমান, অত্যধিক চা-কফি পান করেন, শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখতে যথেষ্ট পরিমাণ জল খান না, মদ্যপানের অভ্যাস রয়েছে, এবং অনেক ক্ষণ ধরে এক নাগাড়ে বৈদ্যুতিক যন্ত্রের screenএর দিকে তাকিয়ে থাকেন, তাঁদের তো এমন মাথা ব্যথা হওয়া খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। মহিলাদের ঋতুস্রাবের আগে Premenstrual Syndrome হিসেবেও মাথা ব্যথা দেখা যেতে পারে, এবং এটা হয় hormoneএর প্রভাবে। কোনটি আপনার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য সেটা আপনাকেই বুঝতে হবে। রাতে ৬ ঘন্টা মত ঘুমানো উচিত, এবং ঘুমের একটা গড় নির্দিষ্ট সময় রাখতে হবে। ঘুমের আগে electronic gadgets ব্যবহার করবেন না। ঘুমের সময়ে ঘর সম্পূর্ণ অন্ধকার করে রাখুন। সন্ধ্যায় চা-কফি-চকলেট-ভাজা-ভুজি জাতীয় খাদ্য এড়িয়ে চলতে চেষ্টা করুন। যথেষ্ট পরিমাণে জল ও জলীয় খাদ্য খাবারে রাখুন। দুপুরের ঘুম কমিয়ে দিন বা সম্ভব হলে একেবারে এড়িয়ে চলুন। গভীর রাত্রি অবধি কাজ করার চেয়ে তাড়াতাড়ি কাজ সেরে, ঘুমিয়ে নিয়ে তার পরে ভোরে জেগে উঠে কাজ করা শ্রেয়। হঠাৎ করে ঘুমের ওষুধ বা antidepressants জাতীয় ওষুধ এক বারে বন্ধ করে দিলেও মাথা ব্যথা হতে পারে। যদি ‘নাক-ডাকা’র কারণে রাত্রে ঘুমাইতে ভেঙে যাওয়ায় নিদ্রাহীনতা থেকে থাকে, তবে এটা Obstructive Sleep Apnoea, এবং আপনার ENT বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। যদি সব নিয়ম পালন করা সত্ত্বেও দুশ্চিন্তা, নিদ্রাহীনতা, বিশেষ করে রাতেই ঘুম না আসা, বা বারংবার ঘুম ভেঙে যাওয়ার সমস্যা থেকেই যায় তবে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।
    Migraine : এই ক্ষেত্রে মাথা ব্যথা যে কোনো এক দিকে হয়; ব্যথা হওয়ার আগে বিশেষ ‘migraine aura’ থাকে(পূর্বাভাস হিসেবে মাথা ঘোরা চোখে অন্ধকার বা আলোকবিন্দু দেখতে পাওয়া); আলো ও শব্দের সম্মুখীন হলে ব্যথা ও অস্বস্তি বৃদ্ধি পায়; গা-গুলানো ও বমি হতে পারে, এবং এই সমস্ত উপসর্গ বারংবার হতে থাকে। এই উপসর্গগুলো cancer, tumour ইত্যাদির ক্ষেত্রেও হতে পারে তাই রোগীকে পরীক্ষা না করে migraineএর ওষুধ prescribe করা একেবারে নিষিদ্ধ। আপনার যদি এমন ধরনের ব্যথা হয়, তবে স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ, Medicine বিশেষজ্ঞ, বা আপনার পারিবারিক চিকিৎসকের পরামর্শ আগে নিন।
    Sinusitis, Meningitis, Encephalitis এবং অন্যান্য সংক্রমণ : Sinusitis হল Sinus অর্থাৎ মাথার অস্থির মধ্যে ফাঁপা বায়ুপূর্ণ অংশের প্রদাহ(Virus, Bacteria, Fungus, Protozoa, TB, Allergy – এই সব কারণে), যেটা নাকের মাধ্যমে হয়, এবং সাধারণতঃ একই সাথে রোগীর সর্দি, কাশি, হাঁচি, নাক বন্ধ হয়ে থাকা, গলা ব্যথা, জ্বর ইত্যাদি উপসর্গও থাকবে। এই ক্ষেত্রে আপনাকে এই বাজারে COVID19 RTPCR/CBNAAT পরীক্ষা করাতে হবে এটা বলাই বাহুল্য। বাকিগুলো খুব গুরুতর অসুখ, ওগুলো আপনার হয়েছে বলে মনে হয় না, কারণ ওগুলো হলে ঘাড় শক্ত হয়ে থাকে, খুব বেশি জ্বর ওঠে, আলো ও শব্দ অসহ্য মনে হয়, চেতনা আচ্ছন্ন হয়ে যায়, এবং সর্বোপরি রোগী কখনো ক্বোরায় প্রশ্ন করার মত অবস্থায় থাকে না; এবং এগুলোও Virus, Bacteria, Protozoa, TB, Fungus – যে কোনো কারণে হতে পারে। যাই হোক, এই সমস্ত ক্ষেত্রে আপনাকে Medicine বিশেষজ্ঞ বা আপনার পারিবারিক চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
    Hypertension : উচ্চ রক্তচাপের সাধারণতঃ কোনো উপসর্গ থাকে না, কিন্তু কারও কারও ক্ষেত্রে মাথায় ব্যথা হতে পারে, বিশেষ করে মাথার পিছন দিকে, কিন্তু এটা ঠিক বাঁধা-ধরা কোনো নিয়ম নয়, মাথার তালুতে বা দুই পাশেও ব্যথা হতে পারে। আপনার বয়স, খাদ্যাভ্যাস, ওজন ইত্যাদির উপর নির্ভর করে উচ্চ রক্তচাপ আরও বৃদ্ধি পায়। পারিবারিক ইতিহাসে, অর্থাৎ রক্তের সম্পর্কের আত্মীয়দের মধ্যে উচ্চ রক্তচাপের প্রবণতা থেকে থাকলে, বা আপনার ত্রিশের বেশি বয়স হলে অবশ্যই রক্তচাপ মাপা উচিত। উচ্চ রক্তচাপের জন্য কোন ওষুধ খেতে হবে তা এখানে বলে লাভ নেই, কারণ সেটা আপনার বয়স ইত্যাদি অনেক কিছুর উপর নির্ভর করছে, তাই আপনাকে সরাসরি পরীক্ষা না করে ওষুধ দেওয়া অসম্ভব। এই ক্ষেত্রে আপনার পারিবারিক চিকিৎসক বা Medicine বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।
    Temporal Arteritis : এটা যাঁদের হয়, তাঁরা সাধারণতঃ ক্বোরা ব্যবহার করেন না, অর্থাৎ ৬০-৭০ বছর বয়স্কদের; অন্ততঃ শরীর অসুস্থ হলে তাঁদের কখনো ক্বোরায় প্রশ্ন করতে দেখা যায় না। এই ক্ষেত্রে মাথার দুই পাশে রগে অসহ্য ব্যথা হয়। এটা রক্তবাহী ধমনীর বিশেষ প্রদাহের কারণে হয়ে থাকে। এই ক্ষেত্রে আপনি সরাসরি স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ বা Rheumatologistএর পরামর্শ নিতে পারেন, বা আপনার নিকটবর্তী Medicine বিশেষজ্ঞ বা আপনার পারিবারিক চিকিৎসকের সাথেও পরামর্শ করতে পারেন।
    Uncorrected Refractory Error : চোখের power বাড়লে বা কমলে অনেক সময়ে মাথায় ব্যথা দেখা যেতে পারে। এটা চোখের চলাচলের সাথে জড়িত মাংসপেশীর উপর বাড়তি strainএর কারণে হয়ে থাকে। আপনার যদি চশমা ব্যবহার করতে হয় তবে প্রত্যেক বছর অন্ততঃ এক বার চক্ষু বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে পরীক্ষা করানো উচিত। যদি আপনি অপ্রাপ্তবয়স্ক চশমা ব্যবহারকারী হন, তবে আপনার ঘন-ঘন power পরিবর্তন হতে পারে, তাই ১৮-২০ বছর বয়স হওয়া অবধি ছয় মাস অন্তর পরীক্ষা করান(এই বয়সের পর সাধারণতঃ চোখের power তত ঘন ঘন পরিবর্তিত হয় না)। মধুমেহ রোগীদের ক্ষেত্রে ছয় মাস থেকে এক বছর অন্তর চক্ষু পরীক্ষা করাতে হতে পারে, বা মধুমেহর প্রভাব চোখের উপর পড়লে আরও ঘন ঘন পরীক্ষার প্রয়োজনও হতে পারে। দয়া করে screen time কম করুন, screenএ blue light filter ব্যবহার করুন, এবং চশমাতেও anti glare coating লাগান। চোখে দেখার সমস্যা হচ্ছে, বা জল পড়া, জ্বালা হওয়ার মত সমস্যা হচ্ছে বলে মনে হলে মনে হলে সত্বর চক্ষুরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।
    Intracranial Space Occupying Lesions : অর্থাৎ করোটির প্রকোষ্ঠের অভ্যন্তরে কোনো স্থানাধিকারী রোগ — যেমন cancer, tumour, রক্ত জমাট বাঁধা(subdural haemorrhage, extradural haemorrhage, subarachnoid haemorrhage, intraparenchymal haemorrhage), জন্মগত কারণে বা syphilis ইত্যাদি কারণে ধমনীর দেওয়ালের ত্রুটি-বশতঃ aneurysmal rupture, ফিতাকৃমির থেকে neurocysticercosis ইত্যাদি। এখন – Aneurysmal Rupture অথবা Intraparenchymal, Extradural বা Subarachnoid Haemorrhage(এটায় চিত্রে বর্ণিত ‘Thunderclap headache’ হয়, যেটা বিনা মেঘে বজ্রাঘাতেরই মত)আপনার হওয়ার সম্ভাবনা নেই, কারণ ওগুলো আপৎকালীন পরিস্থিতি, ওগুলো হলে আপনি এত দিন ধীরে সুস্থে ক্বোরায় প্রশ্ন করতে পারতেন না। বাকি রইল Subdural Haemorrhage – বয়স্কদের ক্ষেত্রে অনেক সময়ে পুরোনো Subdural Haemorrhageএর জন্য ব্যথা হতে পারে। ফিতাকৃমি বা tapewormএর কারণে সাধারণতঃ মাথা ব্যথার থেকে বমি ও খিঁচুনি বেশি দেখা যায়। Cancer মস্তিষ্কে হলে বা অন্যত্র থেকে মস্তিষ্কে ছড়ালে বমি, ওজন হ্রাস, দুর্বলতা, চোখে দেখার সমস্যা ইত্যাদি একশত রকমের উপসর্গ থাকতে পারে। তাই রোগী না দেখে এখানে রোগ নির্ণয় অসম্ভব। এই রকম ক্ষেত্রে আপনার চিকিৎসা স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ, স্নায়ু শল্যচিকিৎসক, সাধারণ শল্যচিকিৎসক, General Medicine বিশেষজ্ঞ, Haematologist, Radiologist, Oncologist — প্রায় যে কোনো বিশেষজ্ঞের পরামর্শ শেষ অবধি নিতে হতে পারে। তাই কার কাছে শেষ অবধি যেতে হবে সেটা আপনার Medicine বিশেষজ্ঞ বা পারিবারিক চিকিৎসকই আপনাকে বলতে পারবেন।
    Hydrocephalus : এটা মস্তিষ্কের cerebrospinal fluidএর অতিরিক্ত উৎপাদন বা কম নিষ্কাশনের জন্য করোটির প্রকোষ্ঠের অভ্যন্তরে চাপ বৃদ্ধির কারণে হয়। এটাও সাধারণতঃ শিশু ও বয়স্কদের হয়, তবে অন্যান্যদেরও হতে বাধা নেই। শিশুদের ক্ষেত্রে মাথার আকারে বৃদ্ধি হয়, তবে অন্যান্যদের ক্ষেত্রে সেটা হয় না। বড়দের Normal Pressure Hydrocephalusএ চোখে দেখতে সমস্যা, মাথা ব্যথা, বমি, দেহের ভারসাম্য রক্ষায় সমস্যা, অতিরিক্ত প্রস্রাব হওয়া, স্মৃতিহ্রাস ইত্যাদি থাকে, এবং এগুলো আবার Alzheimer’s Disease, Parkinsonism ইত্যাদির উপসর্গের সাথে প্রায় হুবহু এক। কোনটা আপনার রোগ নির্ণয় ঠিক করার জন্য আপনাকে স্নায়ুরোগ বিশেষজ্ঞ বা General Medicine বিশেষজ্ঞের স্মরণাপন্ন হতে হবে।
    Spinal Headache : Ankylosing Spondylosis প্রমুখ Seronegative Arthropathy-জাতীয় রোগে যেখানে শিরদাঁড়ায় ব্যথা হয় সেই সব রোগীদের ঘাড় বা পিঠের ব্যথা ছড়িয়ে মাথায় অনুভূত হতে পারে। এই ক্ষেত্রে প্রথমে আপনার পারিবারিক চিকিৎসক বা General Medicineএর পরামর্শ আগে নিতে পারেন, বা অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞ, Physical Medicine and Rehabilitation বিশেষজ্ঞ বা Rheumatologistএর পরামর্শও সরাসরি নিতে পারেন।
    Medication Overuse : ভারতীয় উপমহাদেশের রোগীদের এটা হওয়ার ষোলো আনা সম্ভাবনা, কারণ এটা আর কিছুই নয়, ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া মুড়ি-মুড়কির মত ব্যথার ওষুধ গিলে ওষুধের কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলা। প্রসঙ্গতঃ এই রকম করলে যকৃত আর বৃক্কের প্রভূত ক্ষতি হওয়ারও সম্ভাবনা আছে।

see more : Fate/Grand Order officially confirmed the inclusion of Vietnam’s historical characters in the game with the highest rarity

এবার আপনি আমাকে বলুন, আপনার করা এর আগের প্রশ্নগুলো : ‘নাক থেকে পরজীবী মস্তিষ্কে যেতে পারে কি না’; ‘মস্তিষ্কের পরীক্ষা করার জন্য CT Scan ভালো না MRI’; ‘মাথার তালুতে ব্যথার কী কারণ’; এবং শেষ অবধি এই ‘প্রচণ্ড মাথা ব্যথায় কী করণীয়’ — এর উত্তরে আমার দেওয়া সমস্ত তথ্যাবলীর থেকে কি আপনি আপনার কী হয়েছে, কোন পরীক্ষা করতে হবে বা কেমন চিকিৎসা প্রয়োজনীয় সেটা আপনি একটুও বুঝতে পারলেন? আপনি কিন্তু আমার থেকেও নিজের রোগের ব্যাপারে বেশি তথ্য রাখেন; আমি তো অর্ধেকের উপর তথ্য না জেনেই সম্ভাব্য কারণ বলেছি — তাও আপনার কিছু বোধগম্য হল কি? এই যে সময়টা ক্বোরায় নষ্ট করলেন, গুরুতর কোনো রোগ হলে সেটা ফিরে পাবেন তো?

এর পরেও যদি বলা হয় যে দয়া করে স্বাস্থ্য নিয়ে ছিনিমিনি না খেলে ডাক্তারের কাছে সরাসরি যান, তবে কি খুব ভুল কাজ হবে?

যাই হোক, আপনি কী করবেন সেটা সম্পূর্ণ আপনার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত, কারণ এর থেকে বেশি কিছু বললে ডাক্তাররাই ‘কমিশনখোর, চশমার, অসভ্য, অতি-পেশাদার, পয়সা ছাড়া কিছু বোঝে না, টুকে পাস’ বলে গালাগাল শোনেন। আপনার দ্রুত আরোগ্য ও সুস্বাস্থ্য কামনা করি। ভালো থাকবেন। নমস্কার।

অদ্রিজা বসু
General Practitioner of Modern Medicine, অথবা পাতি MBBS।
ILS Hospital, Critical Care Unit এ প্রাক্তন Resident Medical Officer2021–2021
R.G. Kar Medical College and Hospital, Kolkata থেকে MBBS2020

seo marketing wordpress seo seo hosting seo and marketing word press seo wordpress and seo wordpress marketing hosting seo seo press pro market seo seo & marketing seo e marketing e marketing seo seo pro wordpress marketing & seo seo di wordpress wordpress seo host hosting and seo wordpress hosting seo wordpress seo wordpress wordpress for marketing seo press wordpress marketing for seo

The source: https://nguyendiep.com
Category: Marketing

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.